13 Falgun 1430 বঙ্গাব্দ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ »
Home / কৃষি সংবাদ / নওগাঁয় আম পাড়া শুরু, দুই হাজার কোটি টাকা বিক্রির আশা

নওগাঁয় আম পাড়া শুরু, দুই হাজার কোটি টাকা বিক্রির আশা

নওগাঁ প্রতিনিধি ঃ নওগাঁয় জেলা প্রশাসনের সিদ্ধান্ত মতে বুধবার সকাল থেকে জেলার ১১টি উপজেলায় গুটি বা স্থানীয় জাতের আম-পাড়া ও বিক্রির মধ্যদিয়ে এ বছরের আম সংরক্ষণ ও বিপণন কার্যক্রম শুরু করেছেন চাষি ও ব্যবসায়ীরা। এছাড়া উন্নত জাতের আমের মধ্যে গোপালভোগ ৩০ মে ও ক্ষীরশাপাত বা হিমসাগর ৫ জুন, নাগ ফজলি ৮ জুন, ল্যাংড়া ও হাঁড়িভাঙ্গা ১২ জুন, ফজলি আম ২২ জুন ও আম রুপালী ২৫ জুন থেকে পাড়তে পারবেন চাষিরা। সর্বশেষ ১০ জুলাই থেকে পাড়া যাবে আশ্বিনা, বারী -৪ ও গৌরমতি জাতের আম। নওগাঁ জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর নওগাঁর উপ-পরিচালক কৃষিবিদ শামছুল ওয়াদুদ বলেন, চলতি ২০২১-২২ মৌসুমে জেলায় ২৯ হাজার ৪৭৫ হেক্টর জমিতে আম চাষ হয়েছে। হেক্টরপ্রতি ফলন ধরা হয়েছে ১২ দশমিক ৫০ টন। উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৩ লাখ ৬৮ হাজার ৪৩৫ টন আম। যার বিক্রয় মূল্য ধরা হয়েছে প্রায় ১ হাজার ৮৪২ কোটি ১৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা। জেলা প্রশাসক খালিদ মেহেদী হাসান বলেন, আবহাওয়ার তারতম্যের কারনে কোথাও নির্ধারিত সময়ের আগে গাছে আম পাকলে সংশ্লিষ্ট উপজেলা প্রশাসনকে জানিয়ে চাষিরা আম পাড়তে পারবেন। নির্ধারিত সময়ের আগে আম পাড়া বন্ধ এবং ক্যালসিয়াম, কার্বাইড, পিজিআর, ফরমালিন, ইথিফনের মতো কেমিক্যাল ব্যবহারের মাধ্যমে যেন কেউ আম পাকিয়ে বিক্রি করতে না পারে সেজন্য গাছ থেকে আম নামানোর সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। বিষয়টি ভ্রাম্যমাণ আদালত মনিটরিং করবে। এ বিষয়ে নওগাঁ পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আবদুল মান্নান মিয়া বিপিএম জানান, আম বাজারের সার্বিক নিরাপত্তার জন্য পুলিশের বিশেষ একটি টিম কাজ করবে বাজারে যেন কোন প্রকার যানযট না হয় সেদিকে ট্রাফিক টহল থাকবে। এছাড়া আম বাজারে কোন প্রকার আইন শৃংখলা বিঘœ কিংবা চাঁদাবাজী যেন না হয় সেদিকে পুলিশ কর্তৃপক্ষ নজরদারী রাখবেন। নওগাঁ আম চাষী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান বলেন, কয়েক দফা বৈরী আবহাওয়া হওয়ায় কারণে আমের ফলন কম এবং কাল বৈশাখি ঝড়ে আম নষ্ট হলেও এখনো আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে চলতি মৌসুমে আমের দাম ভালো পাওয়ার আশা করছেন আম বাগান মালিকরা। এছাড়া আমের আড়ৎদারদের সিন্ডিকেটের কারণে ৪০ কেজিতে মণ হলেও আমাদেরকে ৪৫ থেকে ৫৫ কেজি আম মণ হিসাবে বিক্রয় করতে হয় যদি প্রশাসন এ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করেন তাহলে আম চাষীরা লাভবান হবেন বলে তিনি জানান। জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের তথ্যমতে, চলতি মৌসুমে উপজেলা সদর উপজেলায় ৪৪৫ হেক্টর, রানীনগরে ১১০ হেক্টর, আত্রাইয়ে ১২০ হেক্টর, বদলগাছীতে ৫২৫ হেক্টর, মহাদেবপুরে ৬৮০ হেক্টর, পতœীতলায় ৪ হাজার ৮৬৫ হেক্টর, ধামইরহাটে ৬৭৫ হেক্টর, মান্দায় ৪০০ হেক্টর, পোরশায় ১০ হাজার ৫২০ হেক্টর, সাপাহারে ১০ হাজার হেক্টর, নিয়ামতপুরে ১১৩৫ হেক্টর জমিতে আম চাষ হয়েছে।

আরও পড়ুন...

খাদ্যশস্য ধারণক্ষমতা ৩৫ লাখ মেট্রিকটনে উন্নীত করা হবে: নওগাঁয় খাদ্যমন্ত্রী

এনবিএন ডেক্সঃ  খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, দেশের খাদ্যগুদামে খাদ্যশস্য ধারণ ক্ষমতা ৩৫ লাখ মেট্রিকটনে …