30 Ashin 1427 বঙ্গাব্দ শুক্রবার ১৬ অক্টোবর ২০২০
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ »
Home / অর্থনীতি / ঋণখেলাপি প্রায় ৬শ মিল মালিক নওগাঁয় বেকার ৩০ হাজার চালকল ও চাতাল শ্রমিক-কর্মচারী!!

ঋণখেলাপি প্রায় ৬শ মিল মালিক নওগাঁয় বেকার ৩০ হাজার চালকল ও চাতাল শ্রমিক-কর্মচারী!!

এনবিএনডেক্স : নওগাঁর চালকল চাতালের মালিকরা ব্যয়ভার বহন করতে না পেরে সেই সাথে উৎপাদিত চাল পাইকারের অভাবে অবিক্রীত থাকায় ও দিনের পর দিন ব্যাংকে ঋণের সুদে জর্জড়িত হয়ে নওগাঁ জেলার প্রায় ৭০ থেকে ৮০ ভাগ অটোসহ চালকল চাতাল বন্ধ হয়ে গেছে। বেকার হয়ে পড়েছে নারী-পুরুষ চাতাল শ্রমিক প্রায় ৩০ হাজার। খেলাপি ঋণের দায়ে পড়েছেন ৬’শ মিল মালিক। ব্যাংকের লেন-দেনে চরম বিপর্যয় দেখা দিয়েছে। তিগ্রস্থ একাধিক চালকল মিল মালিক জানিয়েছেন চলতি মৌসুমেও বিদেশ থেকে শুল্কমুক্ত চাল আমদানি, ব্যাংকের উচ্চ সুদের ঋণ আর দেশে উৎপাদিত সরকারের নির্ধারিত চালের মূল্যের সাথে আমদানিকৃত চালের মূল্যের সমন্বয় না থাকায় ব্যবসায়ীদের ভরাডুবির মূল কারণ। নওগাঁ জেলা চালকল মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ হোসেন চকদার বলেন উচ্চ সুদে ব্যাংক ঋণ আর বিদেশ থেকে ভরা মৌসুমে চাল আমদানি করার কারণে দেশের চাল কল ব্যবসায়ীরা পথে বসতে শুরু করেছে। ইতোমধ্যে নওগাঁর ৬শ’ মিল মালিক ব্যাংক ঋণ খেলাপি হয়েছেন। শ্রমিক কর্মচারীরা বেকার হয়ে পড়েছে। এখন আমন মৌসুম চলছে, এ সময় বিদেশ থেকে চাল আমদানি করার কোন প্রয়োজন দেখছি না। ব্যাংক ঋণের সুদের পরিমাণ কমানোর সাথে বিদেশ থেকে শুল্কমুক্ত চাল আমদানি বন্ধ করে শুল্ক আদায়ে জন্য সরকাররে সংশ্লিষ্ট মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। নওগাঁ জেলা ধান চাল ও আড়ৎদার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি নিরোদ বরণ সাহা চন্দন জানান, নওগাঁ দেশের বৃহৎ চালের বাজারে পাইকারদের আগমন নেই। মিল মালিকরা লোকশান গুনতে গুনতে বাধ্য হয়ে মিল বন্ধ করে দিচ্ছে। একদিকে আমদানি নির্ভর চালের বাজার মূল্য তার সাথে ব্যাংক ঋণের উচ্চহারে সুদ সব মিলে চাল ব্যবসায়ে চরম বিপর্যয়ের পড়েছে ব্যবসায়ীরা। কৃষক, শ্রমিক, মধ্যম ও ুদ্র ব্যবসায়ীদের বিশেষ করে যারা চাল উৎপাদনের সাথে জড়িত তাদের বাঁচাতে হলে ভরা মৌসুমে বিদেশ থেকে চাল আমদানী বন্ধ করতে হবে। বাংলাদেশ অটো মেজর এন্ড হাসকিং মিল মালিক সমিতির কেন্দ্রিয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক সারোয়ার আলম কাজল জানান, সরকার রাষ্ট্রের প্রয়োজনে অবশ্যই চাল বিদেশ থেকে আমদানী করবে এটাই স্বাভাবিক। দেশে উৎপাদিত চালের মূল্য পুনরায় নির্ধারণ করার বিষয়ে জরুরিভাবে সরকারকেই বিবেচনা করতে হবে। আমন ধান এবার আশানুরূপ উৎপাদিত হয়েছে। কিন্তু কৃষক ও ব্যবসায়ীরা নায্য দাম পাচ্ছেনা। তারা উৎপাদন ব্যয় উঠাতে পারবে না। সরকারিভাবে এবার দেশে উৎপাদিত চালের মূল্য ৩২ টাকা প্রতি কেজি নির্ধারণ করা হয়েছে। অথচ বিনা শুল্কে আমদানি করা চাল সরকার নির্ধারিত দেশী চালের মূল্যের সাথে সমন্বয় করা হয়নি। নওগাঁ জেলা চালকল মালিক গ্রুপের অফিস সূত্রে জানা গেছে কেন্দ্রিয় কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিভিন্ন জেলায় পৃথক পৃথক দিনে বিভিন্ন দাবি নিয়ে মিল মালিকদের র‌্যালি, সভা, মানববন্ধন ও জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরারবর স্মারক লিপি প্রদান করার কর্মসূচি অব্যাহত রেখেছে। আগামী ৩০ নভেম্বর নওগাঁয় ওই কর্মসূচির দিন ধার্য্য করা হয়েছে। নওগাঁ জেলায় আটোমেটিক রাইস মিলসহ প্রায় ১৫ শ’ চালকল রয়েছে। এতে প্রায় ৪০ থেকে ৫০ হাজার নারী-পুরুষ শ্রমিক জড়িত। ইতোমধ্যে প্রায় ৭০ ভাগ চালকল চাতাল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বেকার হয়ে পড়েছে প্রায় ৩০ হাজার পুরুষ নারী  শ্রমিক। ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের নওগাঁ শাখার ব্যবস্থাপক মোঃ আশরাফ উদ্দিন জানান তাঁর ব্যাংকে চাল ব্যবসায়ীদের লেন-দেনের বিষয়টি খুবই খারাপ পর্যায়ে রয়েছে। ইসলামী ব্যাংক চাল ব্যবসায়ীদের প্রয়োজনীয় ঋণ সুবিধা দিয়ে থাকে। কিন্তু চাল ব্যবসায়ীরা ভাল বাজার না পেয়ে ব্যাংকের সহযোগিতা নিয়ে সুবিধা করতে পারছেন না।

আরও পড়ুন...

নওগাঁয় এন আর বি সি ব্যাংকের ২২ তম শাখার শুভ উদ্বোধন!!

এনবিএনডেক্স: নওগাঁয় এন আর বি সি ব্যাংক (এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড) এর ২২ তম শাখা …